নুডুলস এর উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে জানুন

নুডুলস এর উপকারিতা ও অপকারিতা —  

নুডলস এমনই একটি ফাস্ট ফুড যা ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে বড়রাও খেতে পছন্দ করে। নুডুলস বানাতে সময় খুব কম লাগে এবং এই খাবারের টেস্টও অনেক মজার। কিন্তু নুডুলস খেলে কি কি ক্ষতি হয় এবং কি কি উপকার হয়ে থাকে তা কি জানেন? তবে ঠিক আছে, আপনি অবশ্যই জানেন যে, যদি আমরা অতিরিক্ত কিছু খায় তবে সেটা আমাদের শরীরের ক্ষতি করে। সুতরাং এটা স্পষ্ট যে নুডুলস আমাদের শরীরেরও উপকার এবং ক্ষতি করে থাকে। তবে আসুন জেনে নিই নুডুলস এর উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে।

নুডুলস এর উপকারিতা

প্রথমত, নুডলস কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ এবং পর্যাপ্ত শক্তি সরবরাহ করে। দ্বিতীয়ত, নুডলসে এমন বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা পেটে ধীরে ধীরে হজম হয় এবং ক্ষুধা বাধা দেয়। তৃতীয়ত, চর্বিবিহীন নুডলস যা ইনসুলিনকে স্বাভাবিক ও স্থিতিশীল রাখতে পারে এবং তারপরে রক্তে সুগার দীর্ঘমেয়াদী বজায় রাখতে পারে। এছাড়াও, নুডলস মানুষের মনকে উদ্দীপিত করতে পারে এবং মানুষের মস্তিষ্কের ও স্নায়ুতন্ত্রের 50%কার্বোহাইড্রেট খাবারের প্রয়োজন হয়, আর মস্তিষ্কের এই চাহিদা নুডুলস মিটিয়ে থাকে।

 নুডুলস তৈরির উপাদান হচ্ছে গম বা ময়দা, আর গমে ভিটামিন বি রয়েছে যা মস্তিষ্কের কোষকে উদ্দীপ্ত করতে পারে।নুডুলসের মধ্যে এমন কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে যেগুলো আমাদের খাদ্য ধীরে ধীরে হজম করতে বাধা দেয়। এবং ক্ষুদাতে বাধা দেয়। নুডুলস রয়েছে ভিটামিন বি যা মস্তিষ্কের কোষকে সচল রাখতে পারে।

নুডুলস এর অপকারিতা

১। নুডুলস খেলে স্থূলতা হতে পারে। আসলে নুডুলসে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেটের পাশাপাশি নুডুলসে থাকা চর্বি এবং স্যাচুরেটেড ফ্যাট স্থূলতা সৃষ্টি করে, তাই আপনি যদি বেশি নুডুলস খান তাহলে তা স্থূলতার কারণ হতে পারে। একই সময়ে, স্থূলতা অনেক শারীরিক রোগ যেমন ডায়াবেটিস, থাইরয়েড ইত্যাদির জন্ম দিতে পারে।

২। গর্ভবতী মহিলাদের জন্য নুডুলস খাওয়া ক্ষতিকর। প্রকৃতপক্ষে, বিশেষজ্ঞদের মতে, নুডুলসে যে পরিমাণ সোডিয়াম এবং এমএসজি অর্থাৎ (মনোসোডিয়াম গ্লুটামেট) উপস্থিত রয়েছে তা গর্ভবতী মহিলাদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। অতিরিক্ত নুডুলস খাওয়ার ফলে গর্ভপাত হতে পারে, তাই গর্ভবতী মহিলাদের অতিরিক্ত নুডলস খাওয়া এড়িয়ে চলা উচিত।

৩। নুডুলস খেলে আপনার হার্ট কিডনি ও লিভার সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা দেখা হতে পারে। নুডুলসর মধ্যে প্রোপ্লাইন ও গ্লাইক্লোন নামক উপাদান রয়েছে। এগুলো নুডুলস কে নষ্ট হতে বাধা দিয়ে থাকে। নুডুলস খেলে আপনার শরীরের বিভিন্ন ক্ষতি হতে পারে।

৪। নুডুলসে কার্বোহাইড্রেট এর মাত্রা বেশি থাকায় এটি রক্তের শর্করা বাড়িয়ে তোলে। নুডুলসে কোন প্রোটিন ও মিনারেল থাকে না।

৫। নুডুলস এর স্বাদ বাড়াতে মনোসোডিয়াম ও গ্লুটামেট উপাদান ব্যবহার করা হয়। যার ফলে আমাদের শরীরে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। এলার্জি, মাইগ্রেন জ্বালা মাথাব্যথা সহ বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। তাই নুডুলস খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে আগে থেকেই সাবধান হন।

৬। নুডুলস এ থাকা সোডিয়াম আমাদের উচ্চ রক্তচাপ মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই যাদের উচ্চ রক্তচাপ মাত্রা রোগী তারাই নুডুলস খাওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

৭। নুডুলস তৈরির জন্য ময়দা ব্যবহার হয়ে থাকে। যার কারণে আমাদের শরীরে পানি শূন্যতা দেখা দেয়। নুডুলস ঠিকমত রান্না না হলে আপনার হজম শক্তিতে বাধা দিতে পারে ।এবং অনেক সময় কষ্টকাঠিন্য দেখাইতে পারে।




Comments