চিকেন বিরিয়ানি রেসিপি সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

                    চিকেন বিরিয়ানি রেসিপি

প্রিয় পাঠক, আজ আমরা জানব কিভাবে খুব সহজে চিকেন বিরিয়ানি তৈরি করা যায়। যদি খুব সহজেই চিকেন বিরিয়ানি তৈরি করতে চান তাহলে আমাদের পোষ্টটি সম্পূর্ন পড়ুন।

ভূমিকা

বিরিয়ানি খেতে ভালোবাসেন না এমন লোক খুব কমই আছে। কিন্তু অনেকেই আছেন যারা, সময় এবং রান্নার ঝামেলার কারণে বিরিয়ানি রান্নাটা এড়িয়ে চলেন। কারণ এই ব্যস্ত জীবনে কার কাছে এতটা সময় আছে কঠিন কিছু রাঁধার? কিন্তু তাই বলে ভালো খাবার খাওয়া হবে না? নিশ্চয়ই হবে। চলুন জেনে নেই ঝটপট বিরিয়ানি রান্নার রেসিপি।

চিকেন বিরিয়ানি রেসিপি উপকরণ

উপকরণঃ মুরগির মাংসের ৮ টি বড় টুকরো, বাসমতি চাল – ১ কেজি , গোলমরিচ – ৫ টি, টকদই – ১ কাপ , আদা, রসুন বাটা – ১ টেবিল চামচ করে , এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ, হলুদ, ধনে, জিরা গুঁড়া – ১/২ চা চামচ করে , লংকা গুড়ো – ১ চা চামচ , পেঁয়াজ কুচি – ১ কাপ , টমেটো – ২ টি (টুকরো করা) , গরম মশলা গুড়ো  – ১ চা চামচ , বিরিয়ানি মশলা – ১ চা চামচ , গোলমরিচ গুড়ো – ১/২ চা চামচ , মেথি – ১/২ চা চামচ , লেবুর রস – ২ টেবিল চামচ , কাঁচালংকা – ৫ টি (কুচি) , পুদিনা পাতা কুচি – ১ টেবিল , ধনেপাতা কুচি – ২ টেবিল চামচ , দুধ – ১/২ কাপ (জাফরান মিশানো) , লবণ – পরিমাণমতো , তেল – ১ কাপ , ঘি – ৩ টেবিল চামচ।

প্রণালিঃ  চাল ১০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে আস্ত গরম মশলা ও লবণ দিয়ে সিদ্ধ করুন । মুরগির মাংস, টকদই, হলুদ, ধনে, জিরা গুড়ো, মরিচ গুড়ো, আদা, রসুন বাটা একত্রে মেখে ১ ঘণ্টা ম্যারিনেট করুন । তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে টমেটো দিয়ে ভুনে নিন । এবার ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে কষিয়ে নিন । প্রায় সিদ্ধ হয়ে গেলে লেবুর রস, মেথি, গোলমরিচ গুড়ো, গরম মশলা গুড়ো, বিরিয়ানি মশলা দিয়ে আরো কিছুক্ষণ রান্না করুন । 
জল শুকিয়ে তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে নিন । এবার একটি বড় পাত্রে প্রথমে রান্না করা মাংস, তার উপর সিদ্ধ চাল, কাঁচালঙ্কা, পুদিনা পাতা, ধনেপাতা কুচি দিয়ে পুনরায় এভাবে আরেকটি লেয়ার করে তার উপর দুধ, ঘি ও লবণ ছিটিয়ে দিয়ে ভালো করে ঢেকে ৩০ মিনিট পর  নামিয়ে নিয়ে পরিবেশন করুন ।

বিরিয়ানির মশলা (চিকেন/মাটন/বিফ)

2 কেজি বিরিয়ানি মসলা:
  • দারুচিনি – 10 gm
  • লবঙ্গ – 5 gm
  • শাহি জিরা – 5 gm
  • সাদা গোল মরিচ – 5 gm
  • কালো গোল মরিচ – 5 gm
  • পোস্তদানা – 5 gm
  • ধনিয়া – 5 gm
  • জিরা – 5 gm
  • মরিচ – 5 gm
  • এলাচ – 5 gm
  • জয়ত্রী – 2 gm
  • জয়ফল – 1 টি
  • কালো এলাচ – 2 টি
* ১ কেজি বিরিয়ানি রান্নায় মাত্র ২ টেবিল চামচ বিরিয়ানি মশলা-ই যথেষ্ট

কলকাতা স্টাইল চিকেন বিরিয়ানির রেসিপি

আজ আমরা দেখব কত সহজে বাড়িতেই কলকাতা স্টাইল চিকেন বিরিয়ানির রেসিপি টি ( Kolkata style chicken biriyani recipe in bengali ) রান্না করা যায়। যদি কলকাতার বিরিয়ানি কখনো না খেয়ে থাকেন তবে এই রেসিপিটি একবার করে দেখুন। খুবই সহজ উপায়ে আপনি বাড়িতে বসেই ধাপে ধাপে শিখে নিতে পারেন কলকাতা স্টাইল চিকেন বিরিয়ানির রেসিপি টি। কলকাতার নিজস্ব স্টাইল এ বানানো বাসমতী চালের চিকেন বিরিয়ানি রেসিপি টি নিশ্চয়ই আপনার ভালো লাগবে।

ফার্সি ” বিরিয়ান” শব্দ যার অর্থ হল আগে থেকে ভেজে নেওয়া। এই বিরিয়ান শব্দ থেকেই আজকের বিরিয়ানি । ইরান,তুরস্ক এই সব দিকে মূলত: বিরিয়ানি রান্না সৃষ্টি হলেও ভারত উপমহাদেশে আফগান হয়ে মুঘলদের সাথে বিরিয়ানির প্রবেশ ঘটে এবং সৈন্যদের খাবার তৈরির সুবিধার্থে এই বিরিয়ানি রান্নার ব্যবহার শুরু হয়।একবারে সমস্ত উপকরন দিয়ে রান্না করা যায় বলে শুরুর দিকে মুঘল সৈন্য শিবিরে বিরিয়ানির ব্যবহার হলেও খুব শিগ্রই অতীব সুগন্ধ ও সুস্বাদু হওয়ার জন্য মুঘলারি বিরিয়ানি নবাব দের খাদ্য তালিকায় স্থান পায় এবং তা এক রাজকীয় খাবার হয়ে ওঠে।

প্রথমে মুঘলি কায়দায় বিরিয়ানি রান্না হলেও বিদিন্ন প্রদেশে এই রান্নার স্বাদ ছড়িয়ে পরার সাথে সাথে পরিবর্তন ঘটে বিরিয়ানি রান্নার উপকরন এবং রান্নার পদ্ধতির মধ্যে। তবে কলকাতায় সর্বপ্রথম আলু ও ডিম দিয়ে চিকেন দম বিরিয়ানি রেসিপিটির সৃষ্টি হয়। আগে অন্য কোথাও আলু দিয়ে বিরিয়ানি রান্নার ব্যবহার হয়নি।চিকেন বিরিয়ানি গত কয়েক বছর ধরে ভারতের সর্বাধিক অর্ডার করা খাবারের মধ্যে অন্যতম । কিন্ত আপনি যখন ঘরে বসেই রেস্তোরাঁর মতো কলকাতা স্টাইল চিকেন বিরিয়ানি তৈরি করতে পারেন তাহলে আর অর্ডার কিসের? আসুন দেখে নেওয়া যাক চিকেন বিরিয়ানি রান্নার রেসিপি টি।

কলকাতা স্টাইল চিকেন বিরিয়ানি রেসিপি এর উপকরন

এখানে আমরা ১ কেজি চালের চিকেন বিরিয়ানি রেসিপি টি বানাব, তাই আপনারা প্রয়োজন মতো নিচে দেওয়া উপকরন গুলির সাথে সামঞ্জস্য রেখে উপকরন গুলি কমিয়ে বারিয়ে নিতে পারেন। চিকেন বিরিয়ানি রান্না করতে কি কি লাগে দেখে নেওয়া যায়।
  • বাসমতি চাল – 1 কেজি
  • চিকেন – 1 কেজি
  • পেঁয়াজ- 4/5 টি (বড় সাইজ )
  • আদা রসুন বাটা – 4 টেবিল চামচ
  • কাঁচা লঙ্কা – 6/7 টি
  • আলু – 5 টি (বড় সাইজ)
  • টক দই -150 গ্রাম
  • গোলাপ জল – 2 টেবিল চামচ
  • কেওড়া জল -2 টেবিল চামচ
  • মিঠা আতর – 5/6 ফোটা
  • জিরা-1 টেবিল চামচ
  • লবণ – স্বাদমতো
  • হলুদ – 1-2 টেবিল চামচ
  • জাফরান / কেশর -5 গ্রাম
  • ঘি – 150 গ্রাম
  • সাদা তেল/ সরষের তেল – 50 গ্রাম
  • খোয়া ক্ষীর – 100 গ্রাম

Comments